কেশপুর: দোকানের কর্মচারী তারাপদ দলবেরাকে পিটিয়ে মেরে ফেললেন মালিক শাজাহান আলী, গ্রেপ্তার করলো পুলিশ

সামান্য বচসা, আর তাতে দোকানের কর্মচারীর উপরে এতটাই ক্ষেপে গেলেন যে, শুরু করলেন বেধড়ক মারধর। আর তাতেই অচৈতন্য হয়ে মাটিতে পড়ে যান ওই কর্মচারী। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে ওই কর্মচারীকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। ঘটনা পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার কেশপুরের গোলাড় গ্রামের।

জানা গিয়েছে, মৃতের নাম তারাপদ দলবেরা। তিনি শেখ শাহজাহান আলি নামে ওই ব্যবসায়ীর দোকানে কর্মচারী ছিলেন। গত ৭ই ডিসেম্বর সকালে শেখ শাহজাহান আলির কাছে নিজের পাওনা বকেয়া টাকা আনতে যান তারাপদ দলবেরা। সেইসময় শেখ শাহজাহান টাকা দিতে অস্বীকার করেন। আর তাতেই দুজনের মধ্যে গন্ডগোল বাধে। বচসা চলাকালীনই শাহজাহান চড় মারে তারাপদ দলবেরাকে। তারপর মাটিতে ফেলে এলোপাথাড়ি মারধর করা হয়। পরে অচৈতন্য হয়ে পড়ে তারাপদ। পরে তাঁর মৃত্যু হয়।

এরপরই এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। অভিযুক্ত শাহজাহান আলির বাড়ি ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে এলাকাবাসী। পরিস্থিতি সামলাতে ঘটনাস্থলে আসে কেশপুর থানার বিশাল পুলিসবাহিনী। মৃতদেহ উদ্ধার করতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয় পুলিসকে। মৃতদেহ রেখেই চলে পথ অবরোধ। পরে পুলিশ দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায়।

এদিকে পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে দোকানের মালিক শাজাহান আলীকে গ্রেপ্তার করে। তাঁর বিরুদ্ধে অনিচ্ছাকৃত খুনের মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s