লক্ষ্য দরিদ্র-প্রান্তিক মানুষদের মুখে হাসি ফোটানো, বাড়িতে শীতবস্ত্র পৌঁছে দিলো হিন্দু সংহতি

হিন্দু সমাজের প্রান্তিক, পিছিয়ে পড়া দরিদ্র মানুষদের স্বার্থে হিন্দু সংহতি তাঁর জন্মলগ্ন থেকেই কাজ করে চলেছে। সেই কাজের গতি আরও বেড়েছে বর্তমান সভাপতি শ্রী দেবতনু ভট্টাচার্যের নেতৃত্বে শুরু হওয়া সঞ্জীবন প্রকল্পের মাধ্যমে। বিগত দিনে ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত, বন্যা কবলিত মানুষদের কাছে প্রয়োজনীয় সাহায্য নিয়ে পৌঁছে গিয়েছিল হিন্দু সংহতির কার্যকর্তারা। এবারও তাঁর ব্যতিক্রম হলো না।

ছবি: প্রান্তিক মানুষদের সঙ্গে আলাপচারিতায় হিন্দু সংহতি

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার কুমারগঞ্জ বিধানসভার অন্তর্গত একাধিক প্রত্যন্ত গ্রামে আজ নতুন শীত বস্ত্র নিয়ে ছুটে গিয়েছিলেন হিন্দু সংহতির কার্যকর্তারা। নেতৃত্বে ছিলেন সংগঠনের সম্পাদক শ্রী রজত রায়। একাধিক গ্রাম ঘুরে ঘুরে আদিবাসী, প্রান্তিক, দরিদ্র মানুষদের হাতে নতুন শীতবস্ত্র ও চাদর তুলে দেওয়া হলো।

ছবি: শীতবস্ত্র তুলে দেওয়া হচ্ছে

এ বিষয়ে সম্পাদক রজত রায় বলেন, “ঠিক করেছিলাম,শরীর অশক্ত বা অসমর্থ হওয়াতে যারা আমাদের কাছে পৌঁছতে পারবে না, আমরা সেই হিন্দুদের কাছে পৌঁছে যাবো। আমরা মানে হিন্দু সংহতি। শীত জাঁকিয়ে পড়ার বার্তা দিচ্ছে। আর্থিকভাবে অসহায় প্রান্তিক হিন্দুদের কাছে যতটা সম্ভব শীত বস্ত্র পৌঁছে দেওয়া যায়, এই প্রচেষ্টা হিন্দু সংহতি করে চলেছে।”

তিনি জানান “আজ(৭ই নভেম্বর, রবিবার)দঃ দিনাজপুর জেলার কুমারগঞ্জ বিধানসভা এলাকার রামকৃষ্ণপুর অঞ্চলের বালুপাড়া, বিশ্বনাথপুর, পূর্ব মামুদপুর ও পশ্চিম মামুদপুরে লক্ষী হেমব্রম,অক্লা বর্মণ, বাবুরাম হাঁসদা, অঞ্জলী সূত্রধর, দুর্গামণি রায়দের মত প্রান্তিক হিন্দু মানুষদের কাছে (অধিকাংশ বার্ধক্য ভাতাটুকুও পান না)। তাদের মত অনেকের হাতে উৎকৃষ্ট গরম চাদর(এক চাদরে শীতের কামড় অনেকটাই ঠেকিয়ে দেওয়া যাবে)তুলে দেওয়া হলো হিন্দু সংহতির পক্ষ থেকে।”

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s