তাজমহলের অধিকার দাবি করে মামলা সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের, সময় নষ্ট করবেন না, বললো সুপ্রিম কোর্ট

তাজমহল তৈরি করেছিলেন মুঘল সম্রাট শাহজাহান। কিন্তু সেই তাজমহলের অধিকার কি কাউকে দিয়ে গিয়েছিলেন তিনি? উত্তর জানা তো দূরের কথা, এমন ভাবনাও কখনও মনে আসেনি আমজনতার। কিন্তু সারা ভারতের মানুষকে অবাক করে  সেই তাজমহলের উপরেই নিজেদের অধিকার দাবি করে বসে উত্তরপ্রদেশের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। পাল্টা সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয় ভারতীয় পুরাতত্ত্ব সর্বেক্ষণ (এএসআই)। গত ১০ই এপ্রিল, মঙ্গলবার এই মামলার শুনানি চলাকালীন ওয়াকফ বোর্ডের দাবির সপক্ষে সম্রাট শাহজাহান স্বাক্ষরিত নথি আদালতে পেশ করার নির্দেশও দেওয়া হয়। এর জন্য ওয়াকফ বোর্ডকে এক সপ্তাহের সময়সীমাও দেওয়া হয় আদালতের তরফে। কিন্তু শীর্ষ আদালতে শাহজাহানের স্বাক্ষর জমা দেওয়ার কোনও প্রয়োজন বলে বুধবার দাবি করেন বাবরি মসজিদ বিতর্কে সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের সিনিয়র কাউন্সেল জাফরিয়াব জিলানি। তিনি জানান, নিষ্পত্তি আইন মোতাবেক স্মৃতিসৌধ এবং সমাধিগুলি ওয়াকফ সম্পত্তি। সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে জিলানি জানান, সমাধির উপর নির্মিত কোনও স্মৃতিসৌধ সর্বদাই ওয়াকফ। শীর্ষ আদালতের তরফেই এই নির্দেশ দেওয়া দিয়েছিল।

২০০৫ সালে তাজমহলের উপর নিজেদের অধিকার দাবি করে উত্তরপ্রদেশের সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড। এই সংক্রান্ত নির্দেশও দেওয়া হয়। বিষয়টি নিয়ে ২০১০ সালে সুপ্রিম কোর্টে আবেদন জানায় এএসআই। ওয়াকফ বোর্ডের নির্দেশের উপর স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়। গতকাল প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বাধীন একটি বেঞ্চে এএসআইয়ের আবেদনের শুনানি হয়। শুনানি চলাকালীন প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র ওয়াকফ বোর্ডকে বলেন, ‘ভারতে কে বিশ্বাস করবে যে এটা ওয়াকফ বোর্ডের সম্পত্তি? এই ধরনের বিষয়গুলির জন্য সুপ্রিম কোর্টের সময় নষ্ট না করা উচিত।’ তিনি আরও বলেন, ‘কবে এটা আপনাদের দেওয়া হয়েছে? ২৫০ বছরেরও বেশি সময় ধরে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ক্ষমতায় ছিল। তারপর এর অধিকার আসে কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে। তত্ত্বাবধানের ভার পড়ে এএসআইয়ের হাতে।’ ওয়াকফ বোর্ডের আইনজীবী ভি ভি গিরি জানান, শাহজাহান বোর্ডকে ওয়াকফনামা দিয়েছে। এরপরেই বেঞ্চের তরফে শাহজাহানের দেওয়া আসল নথিটি আদালতে পেশ করার নির্দেশ দেওয়া হয়। তবে ওই ওয়াকফনামায় শাহজাহান কীভাবে সই করলেন, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন প্রধান বিচারপতি।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s