কানিং-এ বোমা বাঁধতে গিয়ে জখম ৪ মুসলিম দুষ্কৃতি

দক্ষিণ ২৪ পরগণা জেলার অন্তর্গত কানিং মহকুমা৷ আর এই মহকুমার বিভিন্ন এলাকা প্রায়দিনই খবরের শিরোনামে থাকে বোমা গুলির লড়াইয়ের জন্যে৷ এবার সেই কানিং-এর ইটখোলা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রত্যন্ত গ্রাম গড়খালিতে বোমা বাঁধতে গিয়ে বিস্ফোরণে জখম হলো চারজন মুসলিম দুষ্কৃতি৷ স্থানীয় সুত্রে জানা গিয়েছে যে গত ২০শে মার্চ, মঙ্গলবার রাতে ওই গড়খালি গ্রামে গোপনে বোমা বানানো চলছিল৷ কিন্তু আচমকাই বিস্ফোরণ হয়৷ বিস্ফোরণের তীব্রতা এতটাই ছিল যে বিস্ফোরণের আওয়াজে কেঁপে ওঠে গোটা গ্রাম৷ গড়খালির ছেলে মুজাফ্ফর নাইয়া গুরুতর জখম হয়েছে৷ তার একটি হাত উড়ে গিয়েছে৷ মুজাফ্ফরের মতো গুরুতর না হলেও, জখম হয়েছে আরও তিনজন৷ সবাই গ্রামের মাঠে বসে বোমা বাঁধছিল৷ বিস্ফোরণের পরেই রক্তাক্ত অবস্থায় কোনও মতে এলাকা ছেড়ে পালায় সকলে৷ বারুইপুর থানার পুলিস মুজাফ্ফরকে রক্তাক্ত অবস্থায় ঘোলা বাজার থেকে ধরে ফেলে৷ মুজফ্ফরের সঙ্গে ধরা পড়ে শফিক জমাদার ও মজিবর মণ্ডল৷ বারুইপুর থানার পুলিশ তিন জনকেই পরে ক্যানিং থানার হাতে তুলে দেয়৷ গ্রামের মানুষের বক্তব্য, পঞ্চায়েত ভোটকে মাথায় রেখে গ্রামে আগ্নেয়াস্ত্র মজুতের কাজ চলছিল৷ গ্রামের বাসিন্দারা পঞ্চায়েতের ভোটের জন্যে বোমা বানানোর কথা বললেও এই বোমা বানানোর পিছনে অন্য কোনো কারণ আছে কিনা, সেটা তদন্ত করে দেখছে কানিং থানার পুলিস  ৷

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s