হিন্দু মন্দির ভেঙে তৈরি করা মসজিদগুলি হিন্দুদের ফিরিয়ে দেবার দাবি তুললেন শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের প্রধান

উত্তরপ্রদেশ শিয়া ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান ওয়াসিম রিজভি অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড কে চিঠি লিখে হিন্দুদের মন্দির ভেঙে বানানো মসজিদ গুলিকে ফেরত দেওয়ার কথা বললেন। তিনি গত ২৭শে ফেব্রূয়ারি, মঙ্গলবার অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ডকে ওই চিঠি দেন।  ওই চিঠিতে উনি অযোধ্যায় বাবরি মসজিদ সমেত আরও ৯ টি মন্দিরের নাম নেন। তিনি ওই মসজিদগুলি কত সালে, এবং কোন শাসক কোন মন্দির ভেঙে নির্মাণ করেছিলেন তার বিস্তারিত বর্ণনা দিয়েছেন। এই তালিকায় পশ্চিমবঙ্গের পানডু য়ারওয়াসিম রিজভি যে মসজিদগুলোর তালিকা দিয়েছেন, তা একবার দেখে নেওয়া যাক-

১। শ্রী রাম মন্দির, অযোধ্যা( উত্তর প্রদেশ) :-
     ইংরেজি ১৫২৮খ্রিস্টাব্দে মুঘল শাসক বাবরের সেনাপতি মীর বাঁকি ওখানে থাকা রাম মন্দির এবং আরো বেশ কয়েকটি পুরোনো মন্দির ভেঙে মসজিদ বানান। পরে ওই মসজিদ বাবরি মসজিদ নাম পরিচিত হয়।
২। কেশব দেব মন্দির, মথুরা (উত্তর প্রদেশ) :-
     এই মন্দির ইংরেজি ১৬৭০ সালে ঔরঙ্গজেব কেশব দেব মন্দির ভেঙে গুঁড়িয়ে দেন এবং ওই স্থানে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন।
৩। অটালা দেব মন্দির, জৈনপুর (উত্তর প্রদেশ) :-
     ১৩৭৭ খ্রিস্টাব্দে ফিরোজ শাহ তুঘলঘ জৈনপুরের হিন্দু মন্দির অটালা দেব মন্দির ধ্বংস করেন এবং ওই স্থানে একটি মসজিদের নির্মাণ করেন, যা বর্তমানে অটালা মসজিদ নামে পরিচিত।
৪। কাশী বিশ্বনাথ মন্দির, বারাণসী(উত্তর প্রদেশ) :-
   মুঘল শাসক ঔরংজেব ১৬৬৯ খ্রিস্টাব্দে বারাণসীর কাশী বিশ্বনাথ মন্দির ধ্বংস করেন এবং ওই স্থানে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন, যা বর্তমানে জ্ঞানব্যাপী মসজিদ নামে পরিচিত।
৫। রুদ্রা মহালয়া মন্দির,বটনা জেলা(গুজরাট) :-
     গুজরাটের এই মন্দির ১৪১০ খ্রিস্টাব্দে আলাউদ্দিন খিলজি ধ্বংস করেন এবং ওই স্থানে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন, যা বর্তমানে জামে মসজিদ নামে পরিচিত।
৬। ভদ্রকালী মন্দির, আহমেদাবাদ,(গুজরাট) :-
     গুজরাটের এই মন্দির এবং এর পাশে থাকা একটি জৈন মন্দিরকে ১৫৫২ খ্রিস্টাব্দে আহমেদ শাহ ধ্বংস করেন এবং ওই স্থানে একটি মসজিদ নির্মাণ করেন, যা বর্তমানে আহমেদাবাদ জামে মসজিদ নামে  পরিচিত।
 ৭। আদিনা মসজিদ, পানডুয়া(পশ্চিমবঙ্গ):-
     পশ্চিমবঙ্গের আদিনাথের মন্দির এবং পাশের বৌদ্ধ মন্দির সিকান্দার শাহ ১৩৭৩ খ্রিস্টাব্দে  মন্দির ভেঙে ওটাকে মসজিদে রূপান্তরিত করেন, যা বর্তমানে আদিনা মসজিদ নামে পরিচিত।
৮। বিজয়া মন্দির, বিদিশা( মধ্য প্রদেশ) :-
    মধ্য প্রদেশের এই হিন্দু মন্দিরকে ১৬৫৮ খ্রিস্টাব্দে ঔরংজেব লুঠ করেন এবং মন্দিরকে মসজিদে রূপান্তরিত করেন, যা বর্তমানে বিজামণ্ডল মসজিদ নামে পরিচিত।
৯। মসজিদ কুবতুল ইসলাম, কুতুব মিনার (দিল্লী) :-
    প্রায় ২৭টি জৈন মন্দির ভেঙে ১২০৬খ্রিস্টাব্দ-১২১০খ্রিস্টাব্দ এর মধ্যে কুতুবুদ্দিন আইবক এই মসজিদের নির্মাণ করেন।
  চিঠির শেষে  ওয়াসিম রিজভি ধর্মের দোহাই দিয়ে বলেন, কাওর যায়গা জোর করে দখল করে সেই যায়গায় মসজিদ বানানো ইসলামে হারাম। রিজভি ল বোর্ডকে বলেন, আপানদের সংগঠনে কট্টরপন্থী মানসিকতার লোকে ভরা, আর আমি জানি আপনাদের এই কট্টরপন্থী বিচারধারার জন্য আমার এই চিঠি নিয়ে বিচার করবেন না আপনারা।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s