হোস্টেলের ঘরে মৃতদেহ মিললো বেঙ্গালুরুতে নার্সিং পড়তে যাওয়া রায়গঞ্জের ছাত্রীর

Hosteler ghore mritodeho millo bangalururবেঙ্গালুরুর বেসরকারি মেডিকেল কলেজ এন্ড নার্সিং ইনস্টিটিউট-এর হোস্টেলের ঘরে মৃতদেহ মিললো উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জের বাসিন্দা এক ছাত্রীর। এই ঘটনা ঘিরে রায়গঞ্জে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মৃত ওই ছাত্রীর নাম মৌসুমী রায়(২০)। তার পরিবারের অভিযোগ তাকে খুন করা হয়েছে। পরিবারের অভিযোগ, বেঙ্গালুরু পুলিশ এই ঘটনায় প্রথমে এফআইআর নিতে চায়নি, পরে তা নেয়। মৃতদেহের ময়নাতদন্তও করে। কিন্তু সঠিক তদন্ত ও পুনরায় ময়নাতদন্তের দাবিতে গতকাল ৩১শে জানুয়ারী, বুধবার মৃত ছাত্রীর পরিবারের লোকজন ও প্রতিবেশীরা রায়গঞ্জ থানায় মৌসুমীর মৃতদেহ নিয়ে এসে বিক্ষোভ দেখান। তারা এই ঘটনায় সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছেন।

গত বছর ২০১৬ সালে বেঙ্গালুরুতে নার্সিং পড়তে গিয়েছিলেন রায়গঞ্জ শহরের বন্দর এলাকার শ্মশান কলোনির বাসিন্দা মৌসুমী। মৌসুমীর মামা ভক্তকুমার দাস বলেন, ‘‘আমার ভাগ্নি মাস ছয়েক আগে কলেজের বন্ধুদের সঙ্গে গোয়া ঘুরতে যায়। সেখানেই তার সঙ্গে আলাপ হয় রায়গঞ্জের বাসিন্দা মেডিকেল ছাত্র মহম্মদ শ্রেয়াস রাজের সঙ্গে। মহম্মদের কাছে এমন কিছু ভিডিও ছিল, যা দেখিয়ে আমার ভাগ্নিকে সবসময় ব্ল্যাকমেল করতো। এমনকি যার সঙ্গে মৌসুমীর বিয়ে ঠিক হয়েছিল, তার কাছেও ভিডিওটি পাঠিয়ে দেয় মহম্মদ শ্রেয়াস। যার ফলে ও খুব চিন্তিত ছিল। এনিয়ে আমার সঙ্গে ওর গত ২৭শে জানুয়ারী দীর্ঘক্ষন কথা হয় আমার। কিন্তু পরেরদিন ফোন করে জানানো হয় যে মৌসুমীর মৃতদেহ কলেজের হোস্টেলে পাওয়া গিয়েছে।’’ মৌসুমীর বাবা থানার সামনে দাঁড়িয়ে বলেন, ‘‘আমার মেয়ে বরাবরই মেধাবী ছাত্রী ছিল। ও কখনো আত্মহত্যা করতে পারেনা। ওকে খুন করা হয়েছে। আমরা দোষী মহম্মদ শ্রেয়াস-এর কঠিন শাস্তি চাই।’’ এ প্রসঙ্গে উত্তর দিনাজপুরের পুলিশ সুপার শ্যাম সিং বলেন যে আমরা অভিযোগ নিয়েছি এবং তদন্ত চলছে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s