বর্ধমানের সত্যানন্দপুরের বাবা সত্যেশ্বর মহাদেবের প্রতিষ্ঠা দিবসের প্রধান অতিথি শ্রী তপন ঘোষ মহাশয়

পূর্ব বর্ধমান জেলার সত্যানন্দপুরের ওলাইচণ্ডীতলা গ্রামটি পূর্ববঙ্গ অর্থাৎ বর্তমান বাংলাদেশ থেকে আসা ছিন্নমূল হিন্দু অধ্যুষিত। ওই গ্রামের কালীমাতা সেবা সমিতি প্রতিবছর বাবা সত্যেশ্বর মহাদেবের প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপন করে থাকে। এই বছর এই অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন হিন্দু সংহতির প্রতিষ্ঠাতা তথা প্রাণপুরুষ ও মুখ্য উপদেষ্টা শ্রী তপন ঘোষ মহাশয়। গত ২৯শে জানুয়ারী, সোমবার এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছিল। এই অনুষ্ঠানে শ্রী তপন ঘোষ মহাশয়ের আগমনকে ঘিরে স্থানীয় হিন্দু জনতার মধ্যে যথেষ্ট উৎসাহ ছিল। প্রথমে শ্রী ঘোষ মহাশয়কে বরণ করে নেওয়া হয়। এছাড়াও এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্বামী দুর্গেশানন্দ মহারাজ ও সমাজসেবী অখিল ভদ্র। এই অনুষ্ঠানের শুরুতে শ্রী তপন ঘোষ মহাশয় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন এবং মন্দির প্রাঙ্গনে একটি অশ্বথ গাছের চারা রোপন করেন – যা অত্যন্ত সম্মানীয় কাজ বলে গণ্য করা হয়। তারপর তিনি তাঁর মূল্যবান বক্তব্য উপস্থিত হিন্দু জনতার সামনে তুলে ধরেন। তিনি তাঁর বক্তব্যে বলেন যে বাংলাদেশে হিন্দু জনসাধারণের ওপর দশকের পর দশক ধরে অত্যাচার হলেও এদেশে বাংলাদেশ থেকে চলে আসা হিন্দুদের ঘুম ভাঙে না। তারা তাদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে ব্যস্ত থাকে। কিন্তু তারা একটি অন্যায় করেছেন। তা হলো এই যে তারা তাদের বর্তমান প্রজন্মের কাছে সত্যিটা লুকিয়েছেন। বলা উচিত যে কেন তারা বাংলাদেশ থেকে পালিয়ে এদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। অনুষ্ঠানের শেষে হিন্দু জনতার উদ্দেশ্যে প্রসাদ বিতরণ করা হয়।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s